গলাচিপা পৌর ও সদর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী রাস্তা নিয়ে রশি টানাটানি | আপন নিউজ

বুধবার, ২৯ মার্চ ২০২৩, ০৬:০০ পূর্বাহ্ন

প্রধান সংবাদ
গলাচিপা হাসপাতালে চলছে রমরমা কমিশন বাণিজ্য, রোগী এলেই পরীক্ষা তালতলীতে মুদি দোকানে টিসিবির পণ্য বিক্রি করায় দোকানিকে ১২ দিনের কারাদণ্ড গলাচিপা ইউএনওর স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ তালতলী পায়রা নদী সংলগ্ন বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ ভেঙ্গে নদী গর্ভে বিলিন ভোট না দেয়ায় জেলে চাল দেয়নি ইউপি সদস্য আমতলী গাজীপুর বন্দর বাজারের স্টলে গোয়ালঘর! কলাপাড়ায় বালতির পানিতে ডুবে দুই বছরের শিশুকন্যার মৃত্যু যশোরের শার্শায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন আমতলীতে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা কলাপাড়ায় পায়রা বন্দরে রামনাবাদ চ্যানেলের ক্যাপিটাল ড্রেসিং আনুষ্ঠানিক ভাবে হস্তান্তর
গলাচিপা পৌর ও সদর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী রাস্তা নিয়ে রশি টানাটানি

গলাচিপা পৌর ও সদর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী রাস্তা নিয়ে রশি টানাটানি

সঞ্জিব দাস, গলাচিপাঃ

গলাচিপা পৌরসভা ও সদর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী একটি রাস্তা পাকাকরণ নিয়ে চলছে রশি টানাটানি। এ অবস্থা চলছে প্রায় দুই দশক ধরে। এ রাস্তাটি গলাচিপা পৌরসভা ও সদর ইউনিয়নের সীমান্তে অবস্থিত হওয়ার কারণে এ অবস্থা বিরাজ করছে। সদর ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের আ. মন্নান মিয়া, হাবিব মাঝি, নজরুল মৃধাসহ অসংখ্য গ্রামবাসী জানান, স্বাধীনতার আগে মাটির এ রাস্তাটি নির্মিত হয়। অথচ অর্ধশতাব্দি পার হলেও মাত্র দেড় কিলোমিটার রাস্তাটি পাকাকরণ না হওয়ায় যাতায়াতে প্রচন্ড দুর্ভোগ পোহাচ্ছে মানুষ। সংশ্লিষ্ট গ্রামবাসীদের সূত্রে এসব তথ্য জানাগেছে। জানাগেছে, এ রাস্তাটির দু’পাশে রতনদি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, উত্তর চরখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও উত্তর চরখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, উত্তর চরখালী বালিকা দাখিল মাদ্রাসা, পশ্চিম রতনদি বায়তুল আকসাা জামে মসজিদ রয়েছে। এ রাস্তার দু’পাশে দেড় হাজার লোকের বসবাস। এছাড়া এ রাস্তা দিয়ে চরখালী, রতনদি, ইটবাড়িয়া মুরাদনগর, গোড়াবালা, পানপট্টি ইউনিয়নেরও লোকজন যাতায়াত করে। গলাচিপা পৌরশহরের প্রাতঃভ্রমনকারীরাও শুকনো মৌসুমে অনেকেই এ সড়ক ভ্রমণ করেন। কিন্তু বর্ষা আসলেই তারা এ রাস্তায় ভ্রমণ করতে আর আসেন না।
এলাকার সমাজসেবী আ. মন্নান মিয়া জানান, এ রাস্তাটি দিয়ে বিভিন্ন এলাকার জনগণ ছাড়াও বেশ কয়েূকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিশুসহ শিক্ষার্থীদের বিশেষ করে বর্ষা মৌসুমে যাতায়াতে চরম দুর্ভোগে পোহাতে হচ্ছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য আতিকুর রহমান হিরন জানান, তিনি ১৩ বছর যাবত এ এলাকার জনসেবা করে আসছেন। পৌরসভার শেষ সীমান্তে হওয়ায় এ রাস্তাটি দীর্ঘদিন যাবত পাকাকরণে উপেক্ষিত হয়ে আসছে। কিন্তু জনস্বার্থে এ রাস্তাটি পাকাকরণ একান্ত প্রয়োজন। উপজেলা প্রকৌশলী জাহাঙ্গীর আলম জানান, রাস্তাটি পাকাকরণে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved 2022 © aponnewsbd.com

Design By MrHostBD
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!