কলাপাড়ায় হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার ও দলীয় পদ থেকে বহিস্কার করার দাবি | আপন নিউজ

বৃহস্পতিবার, ১৩ Jun ২০২৪, ০৫:১৭ অপরাহ্ন

প্রধান সংবাদ
কলাপাড়ায় ফ্রি স্বাস্থ্য ক্যাম্পের বিশেষ প্রচারণা তালতলীতে নাম সর্বস্ব এতিমখানার নামে টাকা উত্তোলন; ভাগবাটোয়ারায় আত্মসাৎ গলাচিপা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের শপথ গ্রহণ কলাপাড়ায় সাবেক বন কর্মকর্তার মরদেহ উদ্ধার কলাপাড়ায় বড়ইতলা নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণের দাবি কলাপাড়ায় রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত ১৫০ পরিবার পেলো গুড নেইবারস’র ত্রাণ সামগ্রী কলাপাড়ায় ক্ষতিগ্রস্থ্য ৩৬০০ পরিবার পেলো জাপানের খাদ্য সহায়তা আমতলীকে ভুমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষনা অসুস্থতায় এইচএসসি পরীক্ষার ফরমে বিলম্ব হওয়ায় হতাশ শিক্ষার্থী পরিবেশ রক্ষায় বিশেষ অবদান রাখা ব্যক্তি- সংগঠক-সংগঠনকে সবুজ সাথী সম্মাননা প্রদান
কলাপাড়ায় হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার ও দলীয় পদ থেকে বহিস্কার করার দাবি

কলাপাড়ায় হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার ও দলীয় পদ থেকে বহিস্কার করার দাবি

আপন নিউজ অফিসঃ কলাপাড়ায় ইউনিয়ন ছত্রলীগ নেতা রাকিবুল ইসলাম হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার ও দলীয় পদ থেকে বহিস্কার করার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

শুক্রবার বেলা ১১ টায় কলাপাড়া প্রেসক্লাবে এই সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

ওই সংবাদ সম্মেলনে নিহত ছাত্রলীগ নেতা রাকিবুল ইসলামের পিতা কলাপাড়ার মিঠাগঞ্জ ইউনিয়নের সাফাখালী গ্রামের মােঃ নাছির উদ্দিন মাতুব্বর বলেন, গত ২৮/০৭/২০২১




বুধবার রাত অনুমান সাড়ে ৮ টায় মিঠাগঞ্জ ইউনিয়নের আজিমদ্দিন গ্রামে মােঃ ফারুক পাহলানের পুত্র মােঃ তরিকুল ইসলাম এর বাড়ীর সামনে রাস্তার উপর আমার ছেলে মােগ্ন রাকিবুল ইসলাম (৪ নং মিঠাগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক) তেগাছিয়া বাজার থেকে আমাদের নিজ বাড়ীতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে ঘটনাস্থলে পৌছিলে আসামীরা (১) মােঃ তরিকুল ইসলাম, পিতা- মােঃ ফারুক পাহলান , সাং- আজিমদ্দিন (৪ নং মিঠাগঞ্জ ইউনিয়ন), মােট ৩৬ জন আসামীরা পূর্ব শত্রুতার জের ধরে হাতে দা , জেলা, চাপাতি, লােহার রড়, লাঠি সােটা ইত্যাদি দেশীয় ধাকালো অস্ত্র নিয়ে রাকিবুল ইসলামের পথরােধ করে আসামী মােঃ আসলাম হাওলাদার , পিতা মৃতঃ তৈয়বুর রহমান হাওলাদার, সাং- বৈদ্যপাড়া (১০ নং বালিয়াতলী ইউপি) হুকুমে আসামী মােঃ আশিক তালুকদার, মােঃ রকি, মােঃ হিরন, মােঃ মুছা, মোঃ সাইফুল ইসলাম রায়হান , মােঃ রুবেল সিকদার, মোঃ কামাল আমার পুত্র ভিকটিম মােঃ রাকিবুল ইসলামকে হত্যার উদ্দেশ্যে এলােপাথারী ভাবে পিটিয়ে, কোপাইয়া মাটিতে ফেলে হাত পা চাপিয়া ধরে এবং আসামী মােঃ তরিকুল ইসলামের হাতে থাকা ধারালাে চাপাতি দিয়ে ডান হাতের কঞ্জির উপরে কোল নিয়ে কাটে দ্বিখন্ডিত করিয়া বিস্রি করে ফেলে। সঙ্গে সঙ্গে আসামী মােঃ সাইফুল ইসলাম রায়হান এর হাতে থাকা ধারালাে দা দিয়া হত্যার উদ্দেশ্যে মােঃ রাকিবুল ইসলামের মাথার উপরে কোপ মারিয়া গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। ওই সময় আসামী মোঃ লাবিব এর হাতে থাকা ধারালো চাপাতি দিয়া ডান হাতের বাহুতে কোপ মারিয়া হাভিড় কাটা , চামড়া কাটা, মাংস কাটা জখম করে। ঐ সময় আসামী মোঃ নবী হােসেন আমার পুত্র মােঃ রাকিবুলকে হত্যার উদ্দেশ্যে পিঠের ডান পাশে কোপ দিয়া গুরুতর জখম করে। তখন আমার পুত্র মােঃ রাকিবুল ইসলাম মাটিতে পরে গেলে অসামী রুবেল সিকদার, মােঃ কামাল, মােঃ করিম কাজী, মােঃ খলিল, মােঃ জুলহাস, মােঃ মাছুম ও মােঃ নােমান সহ সকলে আমার ছেলের শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাথারী ভাবে কোপাইয়া পিটাইয়্যা সমস্ত শরীরে গুরুতর জখম করে। ঐ সময় আসামী মােঃ জাকারিয়া আমার ছেলের ব্যবহৃত টার্চ স্যামপনি মােবাইল সেট মূল্য ১৬,৫০০ / (ষােল হাজার) টাকা নিয়ে যায়। তখন আমার পুত্র জখম মােঃ রাকিবুল ইসলামের আত্মচিকারে আমিসহ সাক্ষীরা এগিয়ে আসলে সকল আসামীরা দাও, ছেনা, চাপাতি, লােহার রড, লাঠি সােটা ইত্যাদি দেশীয় অস্ত্র উচরাইয়া উল্লাস করিতে করিতে খুন জখমের ভয়ভীতি দিয়ে তাড়াইয়া দেয়। আসামীরা আমার পুত্র মােঃ রাকিবুল ইসলামের মৃত্যু নিশ্চিত ভাবিয়া ফালাইয়া রাখে চলিয়া যাওয়ার পর আমি ও সাক্ষীগণকে নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে আমার পুত্রকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য কলাপাড়া হাসপাতালে নিয়ে আসলে প্রাথমিক চিকিৎসার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক অবস্থা আশংকাজনক উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা হাসপাতালে রেফার করেন। পরবর্তীতে বরিশাল শের-ই-বাংলা হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আমার ছেলে মােঃ রাকিবুল ইসলামের অবস্থা শকটাপন্ন অবস্থায় ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে রেফার করেন। পরে আমার স্ত্রী মোসাঃ রাহিমা বেগম বাদী বিগত ইং ২৯/০৭/২০২১ তারিখ আসামী মোঃ তরিকুল ইসলাম সহ মােট ১৭ জনের নাম উল্লেখ করিয়া কলাপাড়া থানার মামলা নং-২২। তাং ২৯/০৭/২০২১ ইং , ধারা- ১৪৩/ ৩২৩ / ৩৪১ / ৩৭৯ / ৩০৭ ৩২৫ / ৩২৬ / ৫০৬ ( খ )/৩৪ দঃ বিঃ করেন।

এ সময় আমার স্ত্রী পুত্র শােকে বিভাের থাকা সকল আসামীদের নাম, ঠিকানা সঠিক স্থানে লিপিবদ্ধ করিতে পারে নাই। আমার স্ত্রী অনেক দুস্কৃতিকারী আসামীদের নাম জানায় বলা সত্ত্বেও এজাহার কলামে তাহাদের নাম লিপিবদ্ধ করে নাই। জখম আমার পুত্র মােঃ রাকিবুল ইসলাম চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিগত ইং ০৭/০৮/২০২১ তারিখ রোজ শনিবার মৃত্যুবরণ করেন। আমার অন্ত মামলার বর্ণিত আসামীদের মধ্যে (১) মােঃ নয়ন বয়াতী, পিতা-মােঃ কামাল বয়াতী, সাং-নাচনাপাড়া, (২) মোঃ রুবেল সিকদার, পিতা- আঃ আসলাম সিকদার, সাং-আরামগঞ্জ , মিঠাগঞ্জ (৩) মে খলিল , পিতা- মােঃ ইব্রাহীম হাওলাদার , সাং- চরপাড়া , মিঠাগঞ্জ ( ৪ ) মোঃ নােমান , পিতা- আবুল কাসেম ফকির , সাং- আলীগঞ্জ , মিঠাগঞ্জ দেরকে কলাপাড়া থানা পুলিশ গ্রেফতার করেন। অন্যান্য আসামীরা প্রকাশ্য দিবালােকে এলাকায় মােরাফেরা করিলেও কলাপাড়া থানা পুলিশ তাহাদেরকে গ্রেফতার করিতেছেনা। বর্তমানে আাসামীরা আমাকে ও আমার পরিবারবর্গ সহ আমার মামলার সকল সাক্ষীগণকে বিভিন্ন ভাবে মামলা প্রত্যাহারের জন্য চাপ প্রয়োগ করিয়া আসিতেছে। আসামীদের তান্ডবে আমরা এলাকা ছাড়িয়া জীবন নিয়ে পালিয়ে বেড়াছে। পরে আমার পুত্র হত্যার সাথে জড়িত থাকা সকল আসামীদের নাম, ঠিকানা জানাইয়া পুত্র হত্যার ন্যায় বিচারের দাবীতে বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত, কলাপাড়ায় ৩৬ জনের নাম উল্লেখ পূর্বক ৰিাত ইং ২৫/০৮/২০২১ তারিখ সিজার ৮৭৮/২১, ধারা- ১৪৩ / ৩২৩ / ৩৪১ / ৩৭৯ / ৩০৭ / ৩২৫ / ৩২৬ / ৩০২ / ৫০৬ ( খ ) / ৩৪ ধারায় মামলা দায়ের করি। আসামী মােঃ আসলাম হাওলাদার , কলাপাড়া উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সহ-সভাপতি,  আসামী মােঃ রকি , কলাপাড়া উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সহ – সম্পাদক , আসামী মােঃ আশিক তালুকদার , কলাপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, আসামী মােঃ হিরন মিয়া , খেপুপাড়া মােজাহার উদ্দিন বিশ্বাস সধারী অনার্স কলেজের ছাত্রলীগের সভাপতি, আসামী মোঃ সাইফুল ইসলাম রায়হান , মিঠাগঞ্জ ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ – সম্পাদক পদে ক্ষমতার অপব্যবহার করে। নৃশংস হত্যাকান্ডে জড়িত থাকিয়া প্রকাশ্যে দাম্বিরের সাথে চলাফেরা করিতেছে। আমার পুত্রের নৃশংস হত্যাকারীদের সুষ্ঠু বিচারের দাবীতে মাননীয় দেশরত্ব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের কাছে আকুল আবেদন দুষ্কৃতকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দলীয় পদ থেকে বহিস্কার করে বিচারের আওতায় আনার জন্য জোর দাবী জানান তিনি।

দুস্কৃতিকারী আসামীরা নৃশংস হত্যাকান্ডের বিচারের ব্যাঘাত সৃষ্টি করার উদ্দেশ্যে মিথ্যা, কাল্পনিক ঘটনা সাজাইয়া আমার হত্যা মামলার সাক্ষীগণসহ আত্মীয় স্বজনদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানী করে আসছে। কলাপাড়া থানা পুলিশ আমার পুত্র হত্যার দুষ্কৃতিকারী সকল আসামীগণকে আগামী ০৭ (সাত) দিনের মধ্যে গ্রেফতার না করিলে এবং বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের সম্মানিত চেয়ারম্যান ও সাধারণ সম্পাদক এবং বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক মহােদয়গণদের নিকট আকুল আবেদন উল্লেখিত হত্যাকান্ডে জড়িত সকল দুষ্কৃতিকারীদের দলীয় পদ থেকে বহিস্কার পূর্বক বিচারে সােপর্দ করার ব্যবস্থা করলে আমার পরিবারের সকল সদস্যদেরকে নিয়ে অনশন পালন করা হবে বলে তিনি সংবাদ সম্মেলনে জানান।

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved 2022 © aponnewsbd.com

Design By JPHostBD
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!