প্রাণের মেলা জাতীয় কবি পরিষদ’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত | আপন নিউজ

বৃহস্পতিবার, ১৩ Jun ২০২৪, ০৫:৩৯ অপরাহ্ন

প্রধান সংবাদ
কলাপাড়ায় ফ্রি স্বাস্থ্য ক্যাম্পের বিশেষ প্রচারণা তালতলীতে নাম সর্বস্ব এতিমখানার নামে টাকা উত্তোলন; ভাগবাটোয়ারায় আত্মসাৎ গলাচিপা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের শপথ গ্রহণ কলাপাড়ায় সাবেক বন কর্মকর্তার মরদেহ উদ্ধার কলাপাড়ায় বড়ইতলা নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণের দাবি কলাপাড়ায় রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত ১৫০ পরিবার পেলো গুড নেইবারস’র ত্রাণ সামগ্রী কলাপাড়ায় ক্ষতিগ্রস্থ্য ৩৬০০ পরিবার পেলো জাপানের খাদ্য সহায়তা আমতলীকে ভুমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষনা অসুস্থতায় এইচএসসি পরীক্ষার ফরমে বিলম্ব হওয়ায় হতাশ শিক্ষার্থী পরিবেশ রক্ষায় বিশেষ অবদান রাখা ব্যক্তি- সংগঠক-সংগঠনকে সবুজ সাথী সম্মাননা প্রদান
প্রাণের মেলা জাতীয় কবি পরিষদ’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

প্রাণের মেলা জাতীয় কবি পরিষদ’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

রিপোর্ট- মাইনুদ্দিন আল আতিকঃ বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় সাহিত্য সংগঠন প্রাণের মেলা জাতীয় কবি পরিষদ-এর ৩য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও আন্তর্জাতিক গুণীজন সংবর্ধনা-২০২৩ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১৩ জানুয়ারি) রাজধানীর সেগুনবাগিচাস্থ কচিকাঁচার মিলনায়তনে সংগঠনটির প্রধান উপদেষ্টা কবি মোহাম্মদ আলমগীর জুয়েল-এর সভাপতিত্বে কবি মুহা. বজলুল করিম ও মাহবুবা বেগমের যৌথ সঞ্চালনায় পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত ও গীতা পাঠের মাধ্যমে বিকাল ৩.০০ টায় অনুষ্ঠান শুরু হয়।

জমকালো ও নান্দনিক এ আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবু আহমেদ জমাদার।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলা একাডেমির পুরস্কারপ্রাপ্ত কবি আসলাম সানী ও বাংলাদেশ সোসাইটি অব নিউরোসার্জনস-এর সভাপতি ডাক্তার মোহাম্মদ হোসেন।

অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন শিক্ষা, সংস্কৃতি, গবেষণা ও মানবকল্যাণধর্মী প্রতিষ্ঠান সফেন ফাউন্ডেশন-এর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি দৈনিক বাংলাদেশ সমাচারের সম্পাদক ও প্রকাশক বহুগুণে গুণান্বিত ব্যক্তি কবি ড. খান আসাদুজ্জামান।

প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় দৈনিক দেশজগত পত্রিকার সম্পাদক বহুগ্রন্থ প্রণেতা কবি ও গবেষক মাহমুদুল হাসান নিজামী।

বিশেষ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফরাজী হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডাঃ এম মোক্তার হোসেন, কথা সাহিত্যিক মোঃ আমিনুল ইসলাম, কবি ও সংগঠক মোসলেহ উদ্দিন, নজরুল বাঙালি, মুহাম্মদ আমির হোসেন, রফিকুল ইসলাম সাবুল, মুন্সী কবির হোসেন, ফারুক মোঃ জাহাঙ্গীর, জহিরুল হক বিদ্যুৎ, ইশতিয়াক আহমেদ, রুনা আক্তার স্বপ্না প্রমুখ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কবি ও সংগঠক এ.কে.এম কবির উদ্দিন, কবি ও সাংবাদিক মাইনুদ্দিন আল আতিক, শিশু সাহিত্যিক আব্দুল করিম (ভারত), কবি জ্যোৎস্না পাল (ভারত), কবি শাহজাদা রিদওয়ান, ডাঃ আব্দুল হাকিম, লায়ন সিদ্দিকুর রহমান, সুজন রায়, আলহাজ্ব কাওসার, সাংবাদিক নুরুল আমিন ও এস এম আলমগীর হোসেন, তরুণ বিজ্ঞানী মাহবুবুর রহমান শাওন প্রমুখ।

প্রধান অতিথি বিচারপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবু আহমেদ জমাদার তাঁর বক্তব্যে এমন মহতি আয়োজনে আসতে পেরে একটা আলাদা স্বাদ অনুভব করছেন বলে উল্লেখ করেন। সাহিত্যের উন্নয়নে ও উৎকর্ষ সাধনে এমন আয়োজন ব্যাপক ভূমিকা রাখবে বলে মনে করেন তিনি। সাহিত্যানুরাগী এই বিচারপতি এমন সুন্দর আয়োজনে তাঁকে আমন্ত্রণ জানানোয় প্রাণের মেলা কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান এবং ভবিষ্যতে সাহিত্যিকদের ডাকে সাড়া দিবেন বলে আশ্বাস দেন।

বিশেষ অতিথি কবি আসলাম সানী ও ডাক্তার মোহাম্মদ হোসেন এমন সুন্দর আয়োজনে তাঁদের আমন্ত্রণ জানানোয় আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান এবং সাহিত্যের প্রচার ও প্রসারে অনলাইন গ্রুপের ভূমিকা নিয়ে আলোচনা করেন।

উদ্বোধক কবি ড. খান আসাদুজ্জামান প্রাণের মেলার এই আয়োজনকে সুন্দর, সুশৃঙ্খল ও অত্যন্ত অর্থপূর্ণ হবে উল্লেখ করে মহতি এই আয়োজনের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

প্রধান আলোচক কবি মাহমুদুল হাসান নিজামী সাহিত্যের বর্তমান, অতীত ও ভবিষ্যতসহ সার্বজনীন দিক নিয়ে ব্যাপক আলোচনা করেন।

অন্যান্য বক্তারাও সাহিত্যের এমন আসর নতুন লেখক সৃষ্টিতে ব্যাপক ভূমিকা রাখছে বলে মনে করেন এবং এমন আয়োজনের প্রয়োজনীয়তা আছে বলেও উল্লেখ করেন তাঁরা। এসময় আগত কবি-সাহিত্যিকদের উৎসাহিত করার লক্ষ্যে অনুষ্ঠানের ফাঁকে ফাঁকে কবিতা আবৃত্তি ও গান পরিবেশন করা হয়।

অনুষ্ঠানে বহুমুখী শিল্পস্রষ্টা ড. খান আসাদুজ্জামান রচিত ‘ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের মহাকাব্য’-গ্রন্থ প্রকাশ করায় বিশেষ সংবর্ধনা দেওয়া হয় এবং প্রাণের মেলা সাহিত্য সম্মাননা-২০২৩ এর নির্বাচিত ১০ জন লেখককে সেরা সাহিত্য সম্মাননা দেওয়া হয়। এছাড়া সাহিত্য, সাংবাদিকতা ও মানবতার সেবায় অবদান রাখার জন্য বেশ কিছু গুণী ব্যক্তিকে বিশেষ সম্মাননা দেওয়া হয়। এছাড়া আমন্ত্রিত কবি, সাহিত্যিক ও সাহিত্যানুরাগীদের মধ্যে সাহিত্যের পথে হাঁটার স্বীকৃতি স্বরূপ সম্মাননা প্রদান করে উৎসাহিত করা হয়।

পরে অনুষ্ঠানের সভাপতি মোহাম্মদ আলমগীর জুয়েল-এর বক্তব্যের মধ্যেদিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। পুরো অনুষ্ঠানটি গবেষণামূলক পত্রিকা ধ্রুববাণী’র অফিসিয়াল পেইজ থেকে সরাসরি লাইভ সম্প্রচার করা হয়।

অনুষ্ঠানটি সমন্বয় করেন প্রাণের মেলা জাতীয় কবি পরিষদ-এর প্রতিষ্ঠাতা ও স্বপ্নদ্রষ্টা কবি মোঃ বেল্লাল হাওলাদার। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত দেশ-বিদেশের গুণী কবি-সাহিত্যিক ও সাংবাদিকরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করায় তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তিনি।

উল্লেখ্য, শহীদ বুদ্ধিজীবীদের রেখে যাওয়া আদর্শ ও পথ অনুসরণ করে তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সাহিত্যপ্রেমীদের সুস্থ সাহিত্য বিকশিত করার লক্ষ্যে ‘বিশুদ্ধ সাহিত্য চর্চায় এগিয়ে যাক সাহিত্য সমাজ, জেগে উঠুক মানবতা’-এই স্লোগানকে সামনে রেখে-২০১৯ খ্রিস্টাব্দের ১৪ ডিসেম্বর গ্রুপটির আত্মপ্রকাশ ঘটে। ইতোমধ্যে দেশের অন্যতম প্রধান সাহিত্য গ্রুপের মধ্যে ‘প্রাণের মেলা জাতীয় কবি পরিষদ’ সকল সাহিত্যপ্রেমী মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছে।

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved 2022 © aponnewsbd.com

Design By JPHostBD
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!