কলাপাড়ায় ইফতার সামগ্রী বিক্রি হচ্ছে পলিথিন কিংবা খবরের কাগজে | আপন নিউজ

শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:৫৯ পূর্বাহ্ন

কলাপাড়ায় ইফতার সামগ্রী বিক্রি হচ্ছে পলিথিন কিংবা খবরের কাগজে

কলাপাড়ায় ইফতার সামগ্রী বিক্রি হচ্ছে পলিথিন কিংবা খবরের কাগজে

চঞ্চল সাহাঃ কলাপাড়ায় রমজানের শুরু থেকেই এক শ্রেনীর ব্যবসায়ীরা তৈরী করা ইফতার সামগ্রী বিক্রি করছেন পলিথিন কিংবা খবরের কাগজে। এতে সচেতন মহলে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়ে বিভিন্ন সময় ভ্রাম্যমান আদালতের পদক্ষেপ থাকলে পবিত্র রমজানের সময় এমন ক্ষতিকর প্রভাব থেকে রক্ষার জন্য এগিয়ে আসছে না কেউ। ফলে সড়কের পাশে কিংবা খাবার হোটেল,রেস্তোরায় দেদার বিক্রি হচ্ছে ইফতার সামগ্রী।

প্রত্যক্ষদর্শীদের সূত্রে জানা গেছে, প্রতিবছর রমজান মাস আসলেই কলাপাড়া-কুয়াকাটা পৌরশহর সহ উপজেলার প্রায় সকল ইউনিয়নে এক শ্রেনীর ব্যবসায়ীরা পিয়াজু,বুট, চপ,জিলাপী,বুরিন্দা সহ নানান ইফতার সামগ্রী একদম প্রকাশ্যে রাস্তার পাশে টেবিলের উপর সাজিয়ে বিক্রি করছেন। এছাড়া কতিপয় ব্যবসায়ী দোকানের ভিতরে তৈরী করে এসব খাদ্যদ্রব্য বিক্রি করছেন। তবে এ ধরনের ব্যবসায়ীদের সংখ্যা শতাধিক হবে বলে জানা গেছে। এ ব্যবসায়ীদের অধিকাংশই গরম গরম এসব খাদ্যদ্রব্য পলিথিন কিংবা পেপারের কাগজে সরবরাহ করছেন। ফলে পেপারের কালি কিংবা পলিথিনের গলে যাওয়া আবরন ওই খাদ্যদ্রব্যর সাথে মিশে যাচ্ছে। যা সারা দিনের রোজা রাখার পর নিজের অজান্তে মানুষ ওই খাবারের সাথে অদৃশ্য পলিথিনের গলিত আবরন এবং পেপারের কালি খেয়ে ফেলছে। যা মানব দেহের জন্য চরম ঝুকিপূর্ন । ভবিষ্যতে এ ধরনের খাবার থেকে মানুষ দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হতে পারে। অপরদিকে রয়েছে ইউরিয়া সার মিশ্রিত মুড়ি, যা প্রতিনিয়ত মানুষ খেয়ে যাচ্ছে। এসকল খাদ্যদ্রব্যর মান নিয়ন্ত্রনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের যথাযথ কোন পদক্ষেপ না থাকায় অনায়াসে ব্যবসায়ীরা বিক্রি করে যাচ্ছেন এসব সামগ্রী।

এ ব্যাপারে শাহজাহান নামে এক পথচারী বলেন, তার বাড়ীতে ইফতার সামগ্রী তৈরীর কোন ব্যবস্থা নাই, ফলে প্রতিদিন বাজার থেকে কিনে নিতে হয় । তবে পলিথিন কিংবা পেপারের কাগজে নিলে এমন ক্ষতি হতে পারে তা তারা কখনো ভাবেননি বলে তিনি উল্লেখ করেন।

কাওসার নামে অপর এক ক্রেতা বলেন’এরকম বিষয়গুলো কখনো মাথায়ই আসেনি। তবে আগামী দিন গুলোতে তিনি গরম খাবার নিতে পলিথিন কিংবা খবরের কাগজ বর্জন করবেন বলে তিনি উল্লেখ করেন।

নাগরিক অধিকার কলাপাড়ার আহবায়ক নাসির তালুকদার বলেন’ জেনে শুনে মানুষের ক্ষতি করার অধিকার কারোর নেই, নিষিদ্ধ পলিথিন তৈরী বন্ধে সরকারের যেমন পদক্ষেপ নেয়া উচিৎ,তেমনি যারা ব্যবসা করছেন,তাদেরও গরম খাবার পলিথিন কিংবা খবরের কাগজে দেয়া উচিৎ নয়। যা স্বাস্থ্যর জন্য ঝুকিপূর্ন বলে তিনি উল্লেখ করেন।

কলাপাড়া হাসপাতালের চিকিৎসক ডা.জুনায়েত হোসেন লেলিন বলেন’ গরম খাবারে পলিথিনের গলিত অংশ এবং খবরের কাগজের কালি এক সময় মানুষের মৃত্যুর কারনও হতে পারে। এটা বর্জন করা উচিত বলে তিনি উল্লেখ করেন।

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved 2022 © aponnewsbd.com

Design By JPHostBD
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!