রবিবার, ২৫ Jul ২০২১, ১০:১৯ অপরাহ্ন

বাউফল চেয়ারম্যান পূত্রের অবৈধ বালু ব্যবসা!

বাউফল চেয়ারম্যান পূত্রের অবৈধ বালু ব্যবসা!

এম.এ হান্নান, বাউফলঃ

বাবা উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাই ইউপি চেয়ারম্যান ও মা সাবেক উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তাই সরকারি খাল থেকে অবৈধ ‘বোমা’ (ড্রেজার) মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করে রমরমা ব্যবসা করলে কে কি বলবে। কথাগুলো বল্লেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক কৃষক।
সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানাগেছে, পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোতালেব হাওলাদারে ছোট ছেলে হাসিব হাওলাদার উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে অবৈধ ‘বোমা’ (ড্রেজার) মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করছে। এতে একদিকে যেমন সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব, তেমনি ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে এলাকার রাস্তা-ঘাট, জমি, গাছপালা ও বিভিন্ন স্থাপনা। তাদের এমন অবৈধ কাজ দেখার মতো কেউ নেই। নীরব ভূমিকা পালন করছে স্থানীয় প্রশাসন।
স্থানীয় আর এক কৃষক জানান-অবৈধ ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করার বিষয়টি পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক,উপজেলা চেয়ারম্যান,উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও স্থানীয় চেয়ারম্যানকে একাদিক বার জানালেও তাঁরা অদৃশ্য কারনে নীরব ভূমিকায় দন্ডায়মান।
সরকারের বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ অনুযায়ী পুকুর খাল ও নদীতে থেকে বালু উত্তোলন এবং বিক্রি করা যাবে না। মাটির নিচের সকল সম্পাদের মালিক রাষ্ট্র। কোন ব্যক্তি না। অথচ বগা ইউনিয়নের বালিয়া চাদপাল খালে ৫০ থেকৈ ৬০ গজের মধ্যে বগা-আধাবাড়িয়ার মিল মহাসড়কের পাশ থেকে অবৈধভাবে ‘বোমা’ (ড্রেজার) মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। উপজেলা চেয়ারম্যান ছেলে হাসিব হাওলাদার ওই খাল থেকে বালু উত্তোলন করে। বর্তমানে একই খাল দিয়ে অবৈধ বোমা মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করে বিভিন্ন মালিকানাধীণ পুকুর ও জলাস্বয় অর্থের বিনিময় ভরাট করছেন। ঘনফুট বালু বিক্রি করা হচ্ছে ৭ থেকে ১২ টাকা মূল্যে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বোমা মেশিন মালিক জানান, নিচু জমি ভরাট, বাসা-বাড়ি ও নির্মাণ কাজসহ বিভিন্ন কাজের জন্য স্বল্প খরচে বালু উত্তোলন করে তা বিক্রি করেন। দাম নির্ধারন করে দূরত্বের ওপর। গ্রাম-গঞ্জের রাস্তা ও বিভিন্ন স্থাপনা তৈরির কাজে ঠিকাদারেরা তাদের মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করেন। সেটা প্রশাসনের বড় স্যারেরা দেখেন। কিন্তু কোনোদিন বলেননি বোমা মেশিন অবৈধ। এই ধরনের মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করা যাবে না।
পরিবেশ বিষয়ক আইনি সংস্থা ‘বেলা’ বরিশাল অফিসের কর্মকর্তা লিংকন বায়েন জানান, বোমা মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন সম্পূর্ণ অবৈধ। বালু উত্তোলন করতে হলে সরকার স্বীকৃত নির্ধারিত বালু মহাল থেকে তা উত্তোলন করতে হয়। পুকুর বা ডোবা থেকে বালু উত্তোলনের সময় সেখানে যে শূন্যস্থান তৈরি হয় তার কারণে আশপাশের ভূমি বা ভূমিতে অবস্থিত রাস্তা-ঘাট, ফসলি জমি, গাছপালা ও বিভিন্ন স্থাপনা মারাত্মক ঝুঁকিতে পড়তে পারে।

চেয়ারম্যান পূত্র মো. হাসিব হাওলাদার এ প্রতিবেদকের কাছে বালু উত্তোলনের বিষয়টি স্বীকার করেন। এক প্রশ্নে জবাবে তিনি বলেন, আমার ম্যানেজার মাসুদের সাথে যোগাযোগ করেন।
ম্যানেজার মাসুদের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকির হোসেন বলেন, অবৈধ বোমা (ড্রেজার) মেশিন দিয়ে যদি কেউ বালু উত্তোলন করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 aponnewsbd
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!