আমতলীতে আগুনে দুটি দোকান পুড়ে ছাই | আপন নিউজ

সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ০৬:৩৮ অপরাহ্ন

প্রধান সংবাদ
কলাপাড়ায় মসজিদের ইমামের দাড়ি ধরে টানাটানি ও মারধর আমতলীর প্রবাহমান কাউনিয়া খাল উন্মুক্ত রাখার দাবীতে কৃষকের বিক্ষোভ ও সমাবেশ আমতলীতে গলায় ফাঁস দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পড়–য়া ছাত্রের আত্মহত্যা গলাচিপায় শিকল দিয়ে গাছের সাথে বেঁধে কিশোর নির্যাতনের ঘটনায় আটক-৩ কলাপাড়ায় জমিজমা বিরোধ কে কেন্দ্র করে হামলা; আহত-৫ ভাতা নয়, মৃত্যুর আগে মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় নিজের নাম দেখে যেতে চান রাজ্জা কলাপাড়ায় মাদকাসক্ত যুবতীকে কারাদণ্ড গলাচিপায় আন্তর্জাতিক নার্স দিবস পালিত রাঙ্গাবালীতে নাবালিকা ধর্ষণ; অভিযুক্ত ছ্যানা বশার গ্রেপ্তার জামায়াত-শিবির ও শান্তি কমিটি মুক্ত আ.লীগ কমিটির দাবী আমতলী মুক্তিযোদ্ধাদের
আমতলীতে আগুনে দুটি দোকান পুড়ে ছাই

আমতলীতে আগুনে দুটি দোকান পুড়ে ছাই

আমতলী প্রতিনিধিঃ

আমতলী উপজেলার গুলিশাখালী বাজারে প্রতিপক্ষের দেয়া আগুনে শহীদুল ইসলাম জোমাদ্দার ও হাবিবুর রহমানের দুটি দোকান ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। পুড়ে যাওয়া দোকান মালিক মোঃ শহিদুল ইসলাম জোমাদ্দারের অভিযোগ পুর্ব শত্রুতার জের ধরে খোকন বয়াতি ও তার লোকজন দোকানে পেট্রোল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। আমতলী থানায় ওসি শাহ আলম হাওলাদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ঘটনা ঘটেছে সোমবার গভীর রাতে। এতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান অন্তত ৩০ লক্ষ টাকা বলে জানান দোকান মালিকরা।
স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার গুলিশাখালী গ্রামের শহীদুল ইসলাম জোমাদ্দার গত ৩০ বছর ধরে গুলিশাখালী বাজারে মুদি মনোহরদি ও মাছের ব্যবসা করে আসছিল। ভালোই চলছিল তার দিনকাল। সোমবার রাত ১০ টার দিকে তিনি দোকান ঘর বন্ধ করে বাড়ীতে যান। ওইদিন গভীর রাতে পুর্ব শত্রুকার জের ধরে খোকন বয়াতি ও তার লোকজন পেট্রোল দিয়ে শহীদুল ইসলাম জোমাদ্দারের মুদি-মনোহরদি দোকানে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে বলে এমন অভিযোগ শহীদুল ইসলাম জোমাদ্দারের। এতে শহীদুল ইসলাম জোমাদ্দার ও পাশে হাবিবুর রহমানের মুদি মনোহরদি ও মাছের খাবারের দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। বাজারের লোকজন টের পেয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনার চেষ্টা চালায়। কিন্তু পেট্রোল ছিটিয়ে আগুন দেয়ায় আগুন চারি দিকে ছড়িয়ে পরেছে জানান স্থানীয়রা। আড়াই ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে পারেনি। পরে আমতলী দমকল বাহিনীর লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। ততক্ষনে দুটি দোকান ও দোকানের সমুদয় মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে ওই দুটি দোকানের অন্তত ত্রিশ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান দোকান মালিক শহীদুল ইসলাম জোমাদ্দার ও হাবিবুর রহমান। খবর পেয়ে মঙ্গলবার ভোরে আমতলী থানা ওসি মোঃ শাহ আলম হাওলাদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
মঙ্গলবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখাগেছে, আগুনে দুটি দোকান ও দোকানের সমুদয় মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।
প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন বলেন, গভীর রাতে ধাউ ধাউ করে আগুন জ্বলতে দেখে বাহিরে বের হই। পরে দেখতে পাই শহীদুল ইসলাম ও হাবিবুর রহমান জোমাদ্দারের দুটি দোকানে আগুন জ্বলছে। দমকল বাহিনীর সহযোগীতায় আড়াই ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনি। কিন্তু ততক্ষনে দোকান ও দোকানের সমুদয় মালামাল পুড়ে গেছে। তারা আরে বলেন, কিভাবে আগুনের সুত্রপাত হয়েছে তা আমরা জানিনা।
দোকান মালিক মোঃ শহীদুল ইসলাম জোমাদ্দার বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আমাকে আর্থিকভাবে পঙ্গু করে দেয়ার জন্য সন্ত্রাসী খোকন বয়াতির নেতৃত্বে বাবুল, সামসু, স্বপন, নুরু ও লোকমান আমার ঘরে পেট্রোল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। কিছু দিন পূর্বে তারা আমাকে জীবন নাশের হুমকি দেয়। তিনি আরো বলেন, আগুন দিয়ে যাওয়ার সময় সন্ত্রাসীরা আমার সামনে পড়েছে। আমাকে দেখে তারা দৌড়ে পালিয়ে যায়। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।
এ বিষয়ে খোকন বয়াতির মুঠোফোনে (০১৭৫৭০৩৪৬৫৭) যোগাযোগ করা হলে তার ফোন নম্বর বন্ধ পাওয়া গেছে।
আমতলী দমকল বাহিনীর ষ্টেশন ম্যানেজার মোঃ তামিম হাওলাদার বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনা হয়।
আমতলী থানার ওসি শাহ আলম হাওলাদার বলেন, খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ বিষয়ে অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 aponnewsbd
Design By MrHostBD
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!