আঠারোগাছিয়া সমন্বিত মাছের সাথে তরমুজ চাষে স্বাবলম্বী মনিরুল | আপন নিউজ

বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ১২:২৭ অপরাহ্ন

প্রধান সংবাদ
কলাপাড়ায় দুই ইউপি নির্বাচনে ১১ জনের মনোনয়নপত্র দাখিল মাউশি’র প্রশ্ন ফাঁসে জড়িত কলাপাড়ার সেই শিক্ষক সাময়িক বরখাস্ত কলাপাড়ায় মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে গুরুতর আহত-৪ কলাপাড়ায় জমিজমা বিরোধে ঘর ভাঙচুর করে প্রতিপক্ষকে ফাঁসানোর চেষ্টার অভিযোগ খেপুপাড়া বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের গনিত শিক্ষক আটক কলাপাড়ায় ধুলাসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কর্মী সভা অনুষ্ঠিত কলাপাড়ায় মসজিদের ইমামের দাড়ি ধরে টানাটানি ও মারধর আমতলীর প্রবাহমান কাউনিয়া খাল উন্মুক্ত রাখার দাবীতে কৃষকের বিক্ষোভ ও সমাবেশ আমতলীতে গলায় ফাঁস দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পড়–য়া ছাত্রের আত্মহত্যা গলাচিপায় শিকল দিয়ে গাছের সাথে বেঁধে কিশোর নির্যাতনের ঘটনায় আটক-৩
আঠারোগাছিয়া সমন্বিত মাছের সাথে তরমুজ চাষে স্বাবলম্বী মনিরুল

আঠারোগাছিয়া সমন্বিত মাছের সাথে তরমুজ চাষে স্বাবলম্বী মনিরুল

সঞ্জিব দাস, গলাচিপাঃ পটুয়াখালীর পাশের জেলা বরগুণার আমতলী উপজেলা আঠারোগাছিয়া ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড দরিকাঠা গ্রামের নসা হাওলাদার বাড়ির মো. মনিরুল ইসলাম হাওলাদার (৪৫) সমন্বিত মাছ ও তরমুজ চাষ করে আজ স্বাবলম্বী। মনিরুল ইসলাম হচ্ছেন নাসিরউদ্দিন হাওলাদার ওরফে নসা হাওলাদারের ছেলে। কৃষিকাজই তাদের একমাত্র আয়ের উৎস্য। মানুষের সাথে দিনভর কাজ করে করে তারা তাদের জীবন পরিচালনা করতেন এক সময়। এখন তারা নিজেরাই ক্রয় করা জমিতে কৃষি ব্যাংকের ঋণ নিয়ে মাছের পাশাপাশি তরমুজ চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছেন। ‘ক্ষেত থেকে শত শত তরমুজ বিক্রি হচ্ছে, রং বেরঙের সুস্বাদু তরমুজ। লাভজনক হওয়ায় দিন দিন খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠছে তরমুজ চাষ।’ কথাগুলো বলছিলেন মনিরুল ইসলাম। তিনি আরো বলেন, এক সময় আমরা মানুষের সাথে কাজ করতাম। ধীরে ধীরে আমরা কষ্ট করে টাকা জমিয়ে এনজামাল, মো. আনোয়ার, নজরুল ইসলাম, আবদুর রশিদ, হালিমা বেগম, আ. রশিদ মাতব্বরের কাছ থেকে ২২ শতাংশ ৫৮ পয়েন্ট জমি ক্রয় করি। যার মৌজা আঠারোগাছিয়া, জে.এল নম্বর ২০, খতিয়ান নম্বর ১৯, দাগ নম্বর ২০৭৬, ২১২০, ২১২৬, ২১২৭, ২১২৮। পাশাপাশি অন্য মানুষের কাছ থেকে একসোনা কিছু জমি নেই। আর সেই জমিতেই মাছ চাষের পাশাপাশি তরমুজ চাষ করে আল্লাহ আমাকে দু’হাত ভরে দিয়েছেন।

একই গ্রামের মো. আফছের উদ্দিন মাওলানা, মো. তোতা মৃধা, মো. হোসেন গাজী, ইসমাইল চৌকিদার, শাহানুর মেলকার বলেন, অনেক কষ্ট করে চলত মনিরের সংসার। সে পরিশ্রম করে এই জমি চাষ করে ও অনেক ভালো আছে। আল্লাহ ওর মঙ্গল করুক। তারা আরো বলেন আমাদের গ্রামের বেকার যুবকরাও যদি মনিরের মত পরিশ্রম করে তাহলে তারাও স্বাবলম্বী হতে পারবে বলে আমাদের বিশ্বাস।

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 aponnewsbd
Design By MrHostBD
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!