পটুয়াখালীতে নারী মৃত্যুর ঘটনায় ভাংচুর ও বিক্ষোভ | আপন নিউজ

বৃহস্পতিবার, ১৩ Jun ২০২৪, ০৪:৪৯ অপরাহ্ন

প্রধান সংবাদ
কলাপাড়ায় ফ্রি স্বাস্থ্য ক্যাম্পের বিশেষ প্রচারণা তালতলীতে নাম সর্বস্ব এতিমখানার নামে টাকা উত্তোলন; ভাগবাটোয়ারায় আত্মসাৎ গলাচিপা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের শপথ গ্রহণ কলাপাড়ায় সাবেক বন কর্মকর্তার মরদেহ উদ্ধার কলাপাড়ায় বড়ইতলা নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণের দাবি কলাপাড়ায় রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত ১৫০ পরিবার পেলো গুড নেইবারস’র ত্রাণ সামগ্রী কলাপাড়ায় ক্ষতিগ্রস্থ্য ৩৬০০ পরিবার পেলো জাপানের খাদ্য সহায়তা আমতলীকে ভুমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষনা অসুস্থতায় এইচএসসি পরীক্ষার ফরমে বিলম্ব হওয়ায় হতাশ শিক্ষার্থী পরিবেশ রক্ষায় বিশেষ অবদান রাখা ব্যক্তি- সংগঠক-সংগঠনকে সবুজ সাথী সম্মাননা প্রদান
পটুয়াখালীতে নারী মৃত্যুর ঘটনায় ভাংচুর ও বিক্ষোভ

পটুয়াখালীতে নারী মৃত্যুর ঘটনায় ভাংচুর ও বিক্ষোভ

গোফরান পলাশঃ

পটুয়াখালীতে প্রাইভেট স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠান
শরীফ হোসেন-সোনাবানু স্পেশালাইজড হাসপাতালে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় আইরিন
আক্তার (২২) নামে এক সন্ত্রানের জননীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। বুধবার রাত পৌনে ১১টার দিকে অপারেশন থিয়েটারে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনার রেশ ধরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে নিহত‘র পরিবার ও এলাকাবাসী ওই স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠানে ভাংচুর চালায় এবং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিচারের দাবীতে বিক্ষোভ করে। খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশের একাধিক টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

নিহত গৃহবধূর পিতা নুরুল আমিনের অভিযোগ, বুধবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে এ্যাপেন্ডিসাইটস অপারেশন করাতে পটুয়াখালীর প্রাইভেট স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠান শরীফ হোসেন-সোনাবানু স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়
আইরিনকে। এসময় অপারেশন থিয়েটারে দায়িত্বরত পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
বিশ্ববিদ্যালয়ের (পবিপ্রবি) চীফ মেডিকেল অফিসার এটিএম নাসির উদ্দীন ও বরগুনা হাসপাতালের জুনিয়র কন্সালটেন্ট তারেক হাসান কোন প্রকার পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়াই রোগীর শরীরে ঔষধ প্রয়োগ করলে আইরিন অসুস্থ্য হয়ে
পড়ে। পরে পটুয়াখালী ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসাপাতালের ডাক্তার হোসাইন, এফএম আতিকুর রহমান এবং ফেরদৌসি আক্তারসহ একাধিক ডাক্তারদের চিকিৎসার জন্য আনা হয়। আইরিনের অবস্থার উন্নতি ঘটাতে একের পর এক ঔষধ প্রয়োগ করা হয়। কিন্তু রাত পৌনে ১১ টার দিকে আইরিন আক্তার অপারেশন থিয়েটারে মারা যায়।

আইরিনের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পরলে রোগীর স্বজন ও এলাকাবাসী বিক্ষুব্ধ হয়ে হাসপাতালে ব্যাপক ভাংচুর চালায়। ভাংচুরের সময় গোটা হাসপাতালে আতংক ছড়িয়ে পড়লে হাসপাতালে চিকিৎসারত একাধিক রোগী দিকবিদিক হয়ে ছোটা-ছুটি শুরু করে।
খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশের কয়েকটি দল ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়। এসময় বিক্ষুব্ধ স্বজন ও এলাকাবাসী পুলিশের উপস্থিতিতে ওই প্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষের বিচারের দাবীতে বিক্ষোভ করে।

এ প্রসঙ্গে অভিযুক্ত ডাক্তার এটিএম নাসির উদ্দীন ও তারেক হাসান বলেন, চিকিৎসায় কোন কোন প্রকার অবহেলা ও অনিয়ম হয়নি। রোগী খিচুনি রোগে আকক্রান্ত ছিল। আমরা অনেক চেষ্টা করেছি। তদন্তে আমাদের অবহেলা ও অনিয়ম
বেড়িয়ে আসলে তার দায়ভার নেবো।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত সদর থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মোঃ মিজানুর রহমান বলেন,।রোগীর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ আসার পূর্বে বিক্ষুব্ধ স্বজন একটু ঝামেলা করেছে। কিন্তু এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আছে।

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved 2022 © aponnewsbd.com

Design By JPHostBD
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!