আমতলীতে ঔষধ কোম্পানীর এরিয়া ম্যানেজার করোনায় আক্রান্ত; বাড়ী লকডাউন

এপ্রিল ২৩ ২০২০, ১৩:০৬

আমতলী প্রতিনিধিঃ
ড্রাগ ইন্টারন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যালের আমতলী এরিয়া ম্যানেজার প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত  হয়েছেন। তিনি আমতলী পৌরসভার বন্দর সরকারী প্রাইমারী স্কুল সংলগ্ন ভাড়া বাসায় অবস্থান করছেন। বুধবার রাতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। এতে মানুষের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। খবর পেয়ে ওইদিন রাতেই ইউএনও মনিরা পারভীন তার বাড়ী পরিদর্শন শেষে লকডাউন ঘোষনা করেছেন।
জানাগেছে, ড্রাগ ইন্টারন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যালের আমতলী এরিয়া ম্যানেজার গত ১০ এপ্রিল থেকে জ্বর ও হালকা কাশি নিয়ে পৌরসভার আমতলী বন্দর সরকারী প্রাইমারী স্কুল সংলগ্ন শহীদুল ইসলাম তালুকদারের ভাড়া বাসায় অবস্থান করছিলেন। তার শরীরের অবস্থা খারাপ দেখে পরিবারের সদস্যরা গত সোমবার আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ শাহাদাত হোসেনে ব্যাক্তিগত চেম্বারে নিয়ে আসেন। পরে তিনি তাকে করোরা ভাইরাসের পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দেন। ওইদিনই  হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তার নমুনা সংগ্রহ করেন এবং ঢাকা রোগতত্ত¡  রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইসিডিআর) পাঠিয়ে দেয়। বুধবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে তার নমুনা প্রতিবেদন আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসে। ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ আছে তিনি প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এ খবর এলাকায় পৌছলে মানুষের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। বর্তমানে তিনি বাসার আইসোলেশনে আছেন। খবর পেয়ে ওইরাতেই ইউএনও  মনিরা পারভীন তার বাড়ী পরিদর্শন শেষে লকডাউন ঘোষনা করে দিয়েছেন। এ নিয়ে আমতলী উপজেলার করোনা ভাইরাসে চারজন আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে গত ৯ এপ্রিল আওয়ামীলীগ নেতা জিএম দেলওয়ার হোসেন মৃত্যুরবরন করেন। আওয়ামীলীগ নেতার মৃত্যুর পর থেকে বরগুনা জেলা প্রশাসক আমতলী উপজেলাকে লকডাউন ঘোষনা করেন। ওই সময় থেকেই আমতলী উপজেলা লকডাউন অবস্থায় আছে।
করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ঔষধ কোম্পানীর এরিয়া ম্যানেজার মুঠোফোনে বলেন, গত ১০ এপ্রিল জ্বর ও হালকা কাশি অনুভব করি। ওই সময় থেকে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুসারে বাসায় অবস্থান করছি কিন্তু জ্বর কমছে না। পরে গত সোমাবার আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বর্হিবিভাগে গেলে চিকিৎসক শাহাদাত হোসেন আমার নমুনা সংগ্রহ করেন। বুধবার রাতে শুনতে পারি আমি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। তিনি আরো বলেন, আমি বাসার আইসোলেশনে থেকেই চিকিৎসা নেব।
আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ শাহাদাত হোসেন বলেন, ওই রোগী আমার ব্যাক্তিগত চেম্বারে এসেছিল। আমি তাকে নমুনা পরীক্ষার করানোর জন্য পরামর্শ দিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছে।
আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শংকর প্রসাদ অধিকারী বলেন, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ওই রোগীকে বাসার আইসোলেশনে রেখেই যথাযথ চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তিনি আরো বলেন,তার পরিবারের সদস্য ও তার সংস্পর্শে থাকা ব্যাক্তিদের নমুনা সংগ্রহ করা হবে।
আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরা পারভীন বলেন, ওই রোগীর বাড়ী পরিদর্শন করেছি এবং বাড়ী  লকডাউন করা হয়েছে। তাকে বাসায় আইসোলেশনে রেখেই চিকিৎসাসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আমাদের ফেসবুক পেজ




Flag Counter


error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!