রবিবার, ২৫ Jul ২০২১, ০৬:২৮ অপরাহ্ন

কলাপাড়ায় চিকিৎসকের মামলা নিয়ে এলাকায় তোলপাড়; নিন্দার ঝড়

কলাপাড়ায় চিকিৎসকের মামলা নিয়ে এলাকায় তোলপাড়; নিন্দার ঝড়

চঞ্চল সাহাঃ
কলাপাড়া হাসপতালের চিকিৎসক ডা.তনিমা পারভীর রুনার মামলা নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে । ঘটনায় সম্পৃক্ত না থেকেও মামলার আসামী হওয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে। এ নিয়ে বিভিন্ন মহলে বইছে নিন্দার ঝড় ।
নিহতের স্বজনদের সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে সাবেক সংসদ সদস্য আনোয়ার-উল-ইসলামের ভাইয়ের স্ত্রী জবেদা খাতুনকে অসুস্থ অবস্থ কলাপাড়া হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা.তনিমা পারভীনের দায়সারা গোছের চিকিৎসায় জবেদা খাতুন মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। এমনকি রোগী সম্পর্কে আপত্তিরকর মন্তব্যে করেন ওই চিকিৎসক। এতে ক্ষিপ্ত হয় মৃত জবেদা খাতুন’র স্বজনরা।
তবে ডা.তনিমা পারভীন তার মামলায়  রোগীকে যথাযথ চিকিৎসা দিয়েছেন  দাবী করে  তাকে  শারীরিক ভাবে লাি ত করা হয়েছে বলে বিষয়টি উল্লেখ করেন।
এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার ডা.তনিমা পারভীন বাদী হয়ে কলাপাড়া থানায় ১০ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। এতে পটুয়াখালী-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আনোয়ার ইসলাম মিয়ার চার ছেলে ও এক মেয়েকে  আসামী করা হয়েছে । এছাড়া মামলায় এমনও আসামী করা হয়েছে যাদের তিনজন এলাকায় ছিলেন না বলে জানিয়েছেন  মেজবাহ উদ্দিন তপন।
এদিকে, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ’র দাবী ঘটনার সময় ধারনকৃত ভিডিও ফুটেজ দেখে মামলায় আসামী দেয়া হয়েছে । অপরদিকে, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শাহীনা পারভীন সীমা জানান, ঘটনার সাথে সম্পৃক্তদের আসামী করলে কোন আপত্তি থাকে না,অথচ যারা এর ধারে-কাছেও ছিল না তাদের আসামী করে হয়রানি করা আপত্তিজনক বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি আরো বলেন, অচিরেই মামলা প্রত্যাহার করে না নিলে কঠিন কর্মসূচী দেয়া হবে।
মামলার অপর এক আসামী নেছারউদ্দিন খোকন জানান’ আমার বাবা এমপি থাকা অবস্থায়ও এমনকি তার পরেও আমাদের পরিবারের কারোর নামে থানায় কোন দিন কোন সাধারন ডায়েরীও ছিল না। অথচ ডা.তনিমা পারভীন উদ্দেশ্যে মূলক হয়রানি করার পরিকল্পনা করে এ মামলা করেছে । তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে ভিটিও ফুটেজ দেখতে চাইলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ গড়িমসি করছে বলে তিনি অভিযোগ করেছেন।
এদিকে, এলাকার সচেতন মহল এ মামলার নিন্দা জানিয়েছেন । তারা বলেন’ কলাপাড়া হাসপাতালে রোগীদের প্রতি অনেক চিকিৎসকের অবহেলা এটা নতুন কিছু নয় । তাদের মনে রাখা উচিৎ জনগনের  ট্যাক্সের টাকায় তাদের বেতন-ভাতা হয় । তাদের ছেলে-মেয়েদের ভরন-পোষন লেখাপড়া জনগনের ট্যাক্সের টাকায় চলে। অতএব  জনগনের সেবা আগে। যারা এ মামলার সাথে  জড়িত নয়,তাদের জড়িয়ে মামলা একজন চিকিৎসকের উচিৎ নয়  বলে তারা উল্লেখ করেন।

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 aponnewsbd
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!