আমতলীতে চোরকে পুলিশে দেয়ায় ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম | আপন নিউজ

বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:৪৪ অপরাহ্ন

আমতলীতে চোরকে পুলিশে দেয়ায় ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম

আমতলীতে চোরকে পুলিশে দেয়ায় ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম

আমতলী প্রতিনিধিঃ
চোরকে পুলিশে ধরিয়ে দিতে সহযোগীতা করায় কুকুয়া ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোঃ মনিরুল ইসলামকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে চোরচক্রের সদস্যরা। আহত ইউপি সদস্যকে স্বজনরা উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। ওই রাতেই হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরন করেছে। ঘটনা ঘটেছে মঙ্গলবার রাত ১০ টার দিকে উপজেলার কৃষ্ণনগর গ্রামের কালভার্ট সংলগ্ন স্থানে।
জানাগেছে, গত শনিবার গভীর রাতে উপজেলার উত্তর কৃষ্ণনগর গ্রামের আলতাফ হাওলাদারের ঘরে সিদ কেটে প্রবেশ করে চারজনকে কুপিয়ে নগদ ৫০ হাজার টাকা ও স্বর্নালংকার নিয়ে গেছে সঙ্গবদ্ধ চোরচক্র। ওই ঘটনার সাথে জড়িত চোরচক্রের বিরুদ্ধে আমতলী থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগী আলতাফ হাওলাদার। ওই চোরচক্রের সদস্যদের পুলিশকে ধরিয়ে দিতে সহযোগীতা করেন কুকুয়া ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মনিরুল ইসলাম। এতে ইউপি সদস্যের উপর ক্ষিপ্ত হয় চোরচক্র। মঙ্গলবার রাতে ইউপি সদস্যদের ওপর হামলার উদ্দেশ্যে চোরচক্রের মুলহোতা শহীদ গাজী, খোকন গাজী, আবু তাহের ও মামুনের নেতৃত্বে ৭-৮ জনের সঙ্গবদ্ধচক্র কৃষ্ণনগর গ্রামের একটি কালর্ভাটের পাশে ওত পেতে থাকে। ইউপি সদস্য মোটরসাইকেল চালিয়ে যাওয়ার সময় চোরচক্রের সদস্যরা রাস্তা আটকে তার গাড়ীর গতিরোধ করে। পরে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে এবং মোটরসাইকেল পিটিয়ে দুমড়ে-মুড়ছে করে ফেলে। চোরচক্রের হামলায় ইউপি সদস্যের মাথা, পা ও হাতে গুরুতর জখম হয়। তার ডাক চিৎকারে এলাকার লোকজন ছুটে এলে চোরচক্র পালিয়ে যায়। পরে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। ওই হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থা সংঙ্কটজনক দেখে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরন করেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ওই রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এদিকে মঙ্গলবার গভীর রাতে আমতলী ওসি শাহ আলম হাওলাদার ও এসআই মামুনের নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ওই চোরচক্রের দুই সদস্য মোঃ মোস্তফা মুন্সিকে কলাপাড়া উপজেলায় ইটবাড়িয়া এবং মহসিন হাওলাদারকে চাওড়া চন্দ্র গ্রাম থেকে গ্রেফতার করেছে। মোস্তাফা মুন্সির বিরুদ্ধে অস্ত্র মামলাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। মোস্তফার বাড়ী উপজেলার কৃষ্ণনগর গ্রামে এবং মহসিনের বাড়ী ঘটখালী গ্রামে।
ইউপি সদস্য মোঃ মনিরুল ইসলাম বলেন, চোরচক্রকে ধরিয়ে দিতে পুলিশকে সহযোগীতা করায় তারা আমাকে ধারালো অস্ত্র নিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে। তিনি আরো বলেন চোরচক্র আমার মোপরসাইকেল পিটিয়ে দুমড়ে-মুড়ছে করে ফেলেছে।
আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার আলহাজ্ব হারুন অর রশিদ বলেন,ইউপি সদস্যকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরো ইউপি সদস্যের মাথা, হাত ও পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর জখমের চিহৃ রয়েছে।
আমতলী থানার ওসি মোঃ শাহ আলম হাওলাদার বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। এ বিষয়ে কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি আরো বলেন, চোরচক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করেছি।

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved 2022 © aponnewsbd.com

Design By MrHostBD
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!