করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় কলাপাড়ায় দুস্থ্যদের পাশে নেই এনজিও | আপন নিউজ

শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:১২ পূর্বাহ্ন

করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় কলাপাড়ায় দুস্থ্যদের পাশে নেই এনজিও

করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় কলাপাড়ায় দুস্থ্যদের পাশে নেই এনজিও

বিশেষ আপন নিউজ প্রতিবেদকঃ

কলাপাড়ায় করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় চলমান লক ডাউনে কর্মবিমূখ হয়ে পড়া অন্তত: অর্ধ লক্ষ মানুষের খাদ্যের।যোগান চলছে সরকারী অপ্রতুল খাদ্য সহায়তায়। এ উপজেলায় প্রায় ৫০টি এনজিও’র কার্যক্রম চললেও হতদরিদ্র এসব মানুষের পাশে নেই তারা কেউ। এছাড়া গনতন্ত্র, উন্নয়ন, সুশাসন, ভোট ও ভাতের অধিকার নিয়ে একাধিক রাজনৈতিক দল নির্বাচনের সময় শ্রমজীবী এসকল মানুষের দ্বারে দ্বারে প্রতিশ্রুতির ডালি নিয়ে ঘুরলেও এখন অসময়ে একমাত্র সরকার ছাড়া শ্রমজীবী মানুষের পাশে নেই ওই
সকল রাজনৈতিক দলের কেউ। করোনা পরিস্থিতির এ দু:সময়ে শ্রমজীবী এসকল হতদরিদ্র পরিবার গুলোর কোন দিন উনুন জ্বলছে, আবার কোন দিন জ্বলছেনা। তবুও খেয়ে না খেয়ে কেটে যাচ্ছে তাদের এক একটি দিন। এখন তাদের একমাত্র ভরসা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এদিকে হত দরিদ্র রিকশা-ভ্যান ও অটো চালক, প্রান্তিক জেলে-কৃষক, সবজি বিক্রেতা, বাস-ট্রাক শ্রমিক, নরসুন্দর শ্রমিক, হোটেল শ্রমিক, মৎস্য
শ্রমিক, কৃষি শ্রমিক, বিধবা, প্রতিবন্ধী ও বয়স্কদের জন্য সরকারের একাধিক সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচী থাকলেও এসকল কর্মসূচীর যথাযথ বাস্তবায়ন নিয়ে নানা গুঞ্জন রয়েছে। সরকারের ভিজিডি, ভিজিএফ, টিসিবি সহ বিধবা, প্রতিবন্ধী ও বয়স্কদের ভাতা প্রাপ্তিতেও কাঠ খড় পোড়াতে হচ্ছে সুবিধাভোগীদের। করোনা পরিস্থিতির এ দু:সময়ে কলাপাড়ায় ভিজিডি-ভিজিএফ ও টিসিবি নিয়ে রয়েছে নানা বিতর্ক। ইতোমধ্যে কলাপাড়া ইউএনও ভিজিএফ’র দু’তদারকি কর্মকর্তাকে শোকজ করেছেন। টিসিবি’র ডিলারদের হুঁশিয়ারী দিয়েছেন। তবুও পরিস্থিতির কোন দৃশ্যমান পরিবর্তন হয়নি। এরআগে সরকারী চাল নিয়ে ক’জন জনপ্রতিনিধির নামে মামলা হলেও সংশোধন হয়নি অন্যরাও। করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের দেয়া একমাত্র খাদ্য সহায়তার সাথে এসএসসি’১১ ও এসএসসি ১৩ নামের দু’টো সামাজিক সংগঠন নিজেদের চাঁদার টাকায় স্বল্প পরিসরে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে দুস্থ্যদের এমন তথ্য জানিয়েছে উপজেলা প্রশাসন সূত্র।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা তপন কুমার ঘোষ জানান, করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারের নির্দেশে দুর্যোগ ও ত্রান মন্ত্রনালয় থেকে উপজেলায় ৪৩ মেট্রিক টন চাল ও নগদ দু’লক্ষ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। যা দিয়ে উপজেলার ২০০০ পরিবারকে চাল, ডাল, তেল, আলু, লবন ও সাবান সম্বলিত প্যাকেজ সহায়তা দেয়া হয়েছে। এছাড়া এসএসসি’১১ ও এসএসসি ১৩ নামের দু’টো সামাজিক সংগঠন কিছু দুস্থ্য পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে।

কলাপাড়া ইউএনও আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক বলেন, ’করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় এনজিও গুলো শুধুমাত্র সচেতনতার হ্যান্ডবিল বিতরন ছাড়া দুস্থ্য মানুষের জন্য কিছু করেছে বলে আমার জানা নেই। তবে এ পরিস্থিতিতেও তারা কিস্তি আদায় কার্যক্রম পরিচালনার চেষ্টা করায় তাদের সতর্ক করা হয়েছে।’

ইউএনও শহিদুল হক আরও বলেন, ’স্থানীয় মেয়র ও সাংসদ দুস্থ্য মানুষের জন্য কিছু খাদ্য সহায়তা বিতরন করেছেন। করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী, বিত্তবান ব্যক্তি ও এনজিওদের নিয়ে আমি দু’একদিনের মধ্যে সভা ডাকছি।’

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved 2022 © aponnewsbd.com

Design By JPHostBD
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!