আমতলীতে স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতিকে কুপিয়েছে ছাত্রলীগ নেতা | আপন নিউজ

রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১১:০৭ পূর্বাহ্ন

প্রধান সংবাদ
ঘূর্ণিঝড় রেমাল, কলাপাড়ায় ১৫৫ আশ্রয় কেন্দ্র, ২০ মুজিব কেল্লা প্রস্তুত কলাপাড়ায় প্রতিমা ভাং’চু’র করে স্বর্ণের চোখ চু’রি’র মা’ম’লার প্রধান আ’সা’মী গ্রে’ফ’তা’র কলাপাড়ায় ইউএনও অফিসের পুকুরে গোসল করতে গিয়ে পানিতে ডুবে ৮ বছরের শিশুর মৃ’ত্যু আমতলী চঞ্চল্যকর হীরন হত্যা মামলার ক্লু উদঘাটন; সম্পত্তির লোভে শ্বশূরকে জামাতার হত্যা! দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে প্রার্থী হওয়ায় তালতলী উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিবকে অব্যহতি কলাপাড়ায় দুর্নীতির বিরুদ্ধে মতবিনিময় সভা তালতলীর মাঠে তিন প্রার্থী; সভা সমাবেশে ব্যস্ত তারা আমতলীতে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সভাপতি মিলে টেন্ডার ছাড়া বিদ্যালয়ের গাছ বিক্রি! কলাপাড়ায় অবৈধ ভোটার তালিকা তৈরি করে মাদ্রাসার পকেট ম্যানেজিং কমিটি করার অভিযোগ কলাপাড়ায় প্রাকৃতিক দুর্যোগ সংক্রান্ত সচেতনতা বিষয়ক নিয়ে কর্মশালা
আমতলীতে স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতিকে কুপিয়েছে ছাত্রলীগ নেতা

আমতলীতে স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতিকে কুপিয়েছে ছাত্রলীগ নেতা

আমতলী প্রতিনিধি।। পুর্ব শত্রুতার জের ধরে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন খানকে ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে। আহতকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। ওই হাসপাতালের চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরন করেছে।

ঘটনা ঘটেছে মঙ্গলবার রাত পৌনে নয়টার দিকে আমতলী পৌর শহরের আল হেলাল মোড়ে।

জানাগেছে, ২০১৯ সালের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে পৌর আওয়ামীলীগ সভাপতি মোঃ মজিবুর রহমান ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন খান প্রতিদ্বন্ধিতা করেন। ওই নির্বাচনের পর থেকেই স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতির সাথে তার বিরোধ চলে আসছে। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও তার ভাই উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মতিয়ার রহমানের রেসানলে পড়ে বেশ কয়েকবার হামলার স্বীকার হয়েছেন এমন দাবী মোয়াজ্জেম হোসেন খানের। মঙ্গলবার রাত পৌনে নয়টার দিকে মোয়াজ্জেম হোসেন খান আল হেলাল মোড়ে যায়। ওই স্থানে পৌছা মাত্রই উপজেলা ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি সবুজ ম্যালাকার, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ ইফতেখার আহম্মেদ তোহা, ছাত্রলীগ সদস্য শাহাবুদ্দিন সিহাব, সন্ত্রাসী রুহুল আমিন স্বেছাসেবকলীগ সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন খানকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতারি কোপাতে থাকে এমন দাবী প্রত্যক্ষদর্শীদের। তাকে কুপিয়ে সড়কে ফেলে রেখে যায় সন্ত্রাসীরা। সন্ত্রাসীদেও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার বাম পা, মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর জখম হয়। সন্ত্রাসীদের এমন কর্মকান্ডে পৌর শহরের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে দেয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। ওই হাসপাতালের চিকিৎসক মোঃ সুমন বিশ্বাস তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরন করেছেন। ন্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতিকে কুপিয়ে গুরুতর জখমের খবর সর্বত্র ছড়িয়ে পরলে তাৎক্ষনিক ছাত্রলীগ, যুবলীগ স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও শ্রমিকলীগ নেতাকর্মীরা সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার দাবীতে আমতলী চৌরাস্তায় বিক্ষোভ করে সড়ক অবরোধ করে। এ সময় আমতলী চৌরাস্তায় শতাধিক পরিবহন গাড়ী আটকে পড়ে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে ওসি একেএম মিজানুর রহমানের আশ্বাসে আধা ঘন্পা পরে অবরোধকারীরা সড়ক থেকে অবরোধ তুলে নেয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন বলেন, সন্ত্রাসী সবুজ ম্যালাকার, মোঃ ইফতেখার আহম্মেদ তোহা, শাহাবুদ্দিন সিহার, ও রুহুল আমিনসহ ১২-১৫ জন সন্ত্রাসী মোয়াজ্জেম হোসেন খানকে কুপিয়ে সড়কে ফেলে রেখে চলে যায়। তাদের এমন কর্মকান্ডে শহরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে দেয়।
আহত মোয়াজ্জেম খান বলেন, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মজিবুর রহমানের ছেলে তোফাজ্জেল হোসেন তপুর নেতৃত্বে সবুজ ম্যালাকার, মোঃ ইফতেখার আহম্মেদ তোহা, শাহাবুদ্দিন সিহার, সুমন প্যাদা, রাকিব প্যাদা ও রুহুল আমিনসহ -১২-১৫জন সন্ত্রাসী আমাকে কুপিয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ সুমন খন্দকার বলেন, প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে মোয়াজ্জেম খানকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আমতলী থানার ওসি (তদন্ত) রনজিৎ কুমার সরকার বলেন, অবরোধকারীরা সড়ক থেকে অবরোধ তুলে নিযেছে। সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। এ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার চেষ্টা অব্যহত আছে।

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved 2022 © aponnewsbd.com

Design By JPHostBD
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!